ঢাকাবুধবার , ৩ জানুয়ারি ২০২৪
  1. অপরাধ
  2. অর্থনীতি
  3. আইন-আদালত
  4. আন্তর্জাতিক
  5. আপন আলোয় উদ্ভাসিত
  6. আরো
  7. এক্সক্লুসিভ
  8. কবিতা
  9. কৃষি ও প্রকৃতি
  10. খুলনা
  11. খেলাধুলা
  12. গণমাধ্যম
  13. চট্টগ্রাম
  14. চাকুরি
  15. চাঁদপুর জেলার খবর

বালিয়ায় নৌকা প্রতীকের সমর্থনে উঠোন বৈঠকে ডাঃ দীপু মনি

রূপসী বাংলা ২৪.কম
জানুয়ারি ৩, ২০২৪ ৮:৪৭ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

চাঁদপুর-৩ (সদর ও হাইমচর) আসনে আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকার প্রতীকের প্রার্থী ডাঃ দীপু মনি বলেছেন, নৌকা প্রতীক দেশকে স্বাধীনতা এনে দিয়েছে বলেই আজ আমরা পরাধীনতার শিকল থেকে মুক্ত হতে পেরেছি। আপনারা আমাকে গত ১৫ বছর আপনাদের ভোটের মাধ্যমে সেবা করার সুযোগ দিয়েছেন। আগামী ৭ জানুয়ারি দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে চাঁদপুর-৩ আসন থেকে নৌকা প্রতীকে আমাকে আবারও নির্বাচিত করে চাঁদপুরে উন্নয়নের সুযোগ করে দিলে আমি আপনাদের কাছে কৃতজ্ঞ থাকবো। আমার স্বপ্নের চাঁদপুর ও হাইমচর উপজেলার অসমাপ্ত উন্নয়ন কাজগুলো সম্পন্ন করতে পারবো। দেশের ঐতিহ্যবাহী জেলা চাঁদপুরকে সুন্দর জেলা হিসেবে উপহার দেয়ার চেষ্টা করবো।
২ জানুয়ারি মঙ্গলবার নৌকা প্রতীকের নির্বাচনী প্রচারণায় বালিয়া ইউনিয়নের ফরাক্কাবাদ ডিগ্রি কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ ড. মোহাম্মদ হাসান খানের বাড়ির উঠোন বৈঠক, ইচলী ওহিদুল্লাহ পণ্ডিত বাড়ি, বালিয়া আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয় মাঠ, গুলিসা রাঢ়ীর পুল এবং ত্রিপুরা জাতি সমাজ উন্নয়ন সংস্থার নেতৃবৃন্দের সাথে মতবিনিময় ও উঠোন বৈঠকে তিনি এসব কথা বলেন।
তিনি আরো বলেন, চাঁদপুর-৩ আসনে ৫ লাখ ৯ হাজার ভোটার রয়েছে। সকলের কাছে এতো অল্প সময়ে আমার পক্ষে পৌঁছা সম্ভব নয়। তাই আজকে আপনারা যারা এসেছেন তারা আপনাদের এলাকার বাড়ি বাড়ি গিয়ে দীপু মনি হয়ে নৌকার পক্ষে ভোট চাইবেন।
তিনি চাঁদপুরের উন্নয়ন প্রসঙ্গে বলেন, এই পাঁচ বছরে ৪৪টি কমিউনিটি ক্লিনিক স্থাপন করা হয়েছে। চাঁদপুরে মেডিকেল কলেজ, বিজ্ঞান প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, নার্সিং ইনস্টিটিউট, মেরিন ইনস্টিটিউট, মৎস্য গবেষণা ইনস্টিটিউট, বিদেশগামীদের জন্যে ট্রেনিং সেন্টার করা হয়েছে। একটি বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল গড়ে তোলার চেষ্টা চলছে। ফলে এ অঞ্চলে আর বেকার যুবক থাকবে না, বেকার যুবকদের চাকুরির সুযোগ সৃষ্টি হবে।
তিনি আরো বলেন, নির্বাচনী এলাকায় নদী ভাঙ্গন ছিল বড় সমস্যা। সেটি নিরসন হয়েছে। এই আসনে নৌকার আগে ৩২ বছর আরো এমপি ছিল। কিন্তু আপনারা ভোট দিয়ে তাদের এমপি বানিয়ে কাছে পাননি। কিন্তু যারা ওই সময় এমপি হয়েছেন তাঁরা নদী ভাঙ্গন রোধে কাজ করেননি। তারা রাস্তা-ঘাট, স্কুল-কলেজ, মাদ্রাসা কোনো কিছুরই উন্নয়ন করেননি। তারা যেহেতু উন্নয়ন করেননি, তাহলে নৌকা ছাড়া অন্য কারো কথা আমরা বলতে পারি না।
এ সকল উঠোন বৈঠক ও মতবিনিময় সভায় চাঁদপুর সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নূরুল ইসলাম নাজিম দেওয়ান, জেলা আওয়ামী লীগের যুব ও ক্রীড়া সম্পাদক মাসুদ আলম মিল্টন, উপ-প্রচার সম্পাদক হাসান ইমাম বাদশা, সদস্য আইয়ুব আলী বেপারী, ড. মোহাম্মদ হাসান খান, কেন্দ্রীয় যুবলীগের কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য অ্যাডঃ জাফর ইকবাল মুন্না, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি ও ইউপি চেয়ারম্যান রফিকুল্লাহ পাটোয়ারী, সাধারণ সম্পাদক আব্দুল হান্নান, জেলা যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক মাহফুজুর রহমান টুটুল, মোহাম্মদ আলী মাঝি, সদর উপজেলা যুবলীগের আহ্বায়ক অ্যাডঃ হুমায়ুন কবির সুমন, যুগ্ম আহ্বায়ক তাজুল ইসলাম মিয়াজি, ত্রিপুরা জাতি সমাজ উন্নয়ন সংস্থার সভাপতি কর্ণরাজ ত্রিপুরা, সাধারণ সম্পাদক খোকন ত্রিপুরাসহ স্থানীয় আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো। বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।

%d bloggers like this: