ঢাকাসোমবার , ১১ ডিসেম্বর ২০২৩
  1. অপরাধ
  2. অর্থনীতি
  3. আইন-আদালত
  4. আন্তর্জাতিক
  5. আপন আলোয় উদ্ভাসিত
  6. আরো
  7. এক্সক্লুসিভ
  8. কবিতা
  9. কৃষি ও প্রকৃতি
  10. খুলনা
  11. খেলাধুলা
  12. গণমাধ্যম
  13. চট্টগ্রাম
  14. চাকুরি
  15. চাঁদপুর জেলার খবর

মন মানে না, তাই ছুটে এসেছি বিজয় মেলায় : যুদ্ধাহত বীর মুক্তিযোদ্ধা এমএ ওয়াদুদ

রূপসী বাংলা ২৪.কম
ডিসেম্বর ১১, ২০২৩ ৬:৫৩ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

চাঁদপুরে জাঁকজমকপূর্ণ পরিবেশে অনুষ্ঠিত হচ্ছে ৩২তম মুক্তিযুদ্ধের বিজয় মেলা। গতকাল ১০ ডিসেম্বর ছিল মুক্তিযুদ্ধের বিজয় মেলার তৃতীয় দিন। এদিন সাংস্কৃতিক পরিষদের ব্যবস্থাপনায় পরপর দুটি সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছে। দর্শক ছিল কানায় কানায় পরিপূর্ণ। সন্ধ্যায় নতুন কুঁড়ি ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের অনুষ্ঠানের পূর্বে সংক্ষিপ্ত আলোচনায় বক্তব্য রাখেন বিজয় মেলার চেয়ারম্যান জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের কমান্ডার লেঃ (অবঃ) যুদ্ধাহত বীর মুক্তিযোদ্ধা এমএ ওয়াদুদ। তিনি বলেন, উদ্বোধনী দিন আমি সকাল থেকে মেলা মাঠে উপস্থিত ছিলাম। দুপুরের পর হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়ি। মূল অনুষ্ঠানে থাকতে না পারায় নিজের কাছে খারাপ লেগেছে। চিকিৎসক বলেছেন বিশ্রামে থাকতে। কিন্তু মন মানে না, তাই ছুটে এসেছি বিজয় মেলায়। ভারত সরকারের আমন্ত্রণে আমাকে ভারত যেতে হচ্ছে। কেন না ১৬ ডিসেম্বর ভারতেও উদ্যাপন করা হয়। তাই ভারত সরকার আমাকে আমন্ত্রণ জানিয়েছে। আমি না আসা পর্যন্ত আপনারা প্রতিদিন বিজয় মেলায় আসবেন, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান উপভোগ করবেন। আমরা আগে বিজয় মেলায় প্রতিদিন যে দর্শক উপস্থিত থাকতেন তাকে আমরা পুরস্কৃত করতাম। কয়েক বছর সেটি বন্ধ ছিল। এ বছর আমরা সেই পুরস্কারটি দিবো। দেখবো কোন্ ব্যক্তিটি প্রতিদিন মেলা মাঠে উপস্থিত থাকেন। মহান মুক্তিযুদ্ধে আমরা জীবন বাজি রেখে যুদ্ধ করে স্বাধীনতা অর্জন করেছি। অনেকে মা-বোন হারিয়েছে, আবার কেউ ভাই আর বাবাকে হারিয়েছে। এর মাধ্যমেই আমাদের স্বাধীনতা অর্জন। নির্বাচনে আপনারা স্বাধীনভাবে ভোট দিবেন। যদি কেউ বাধা দেয় সেখানে প্রতিহত করবেন। আমি আবারো আপনাদের বলবো, আমি ভারত থেকে না আসা পর্যন্ত বিজয় মেলায় আসবেন। আমরা ১৯৯২ সালে এ মেলা প্রতিষ্ঠা করেছি, তা আপনারা ধরে রাখবেন।
সন্ধ্যা ছয়টায় সাংস্কৃতিক পরিষদের ব্যবস্থাপনায় বঙ্গবন্ধু আবৃত্তি পরিষদের আবৃত্তি ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। সংগঠনের সভাপতি মুক্তা পীযূষের সার্বিক সহযোগিতায় বঙ্গবন্ধু আবৃত্তি পরিষদের শিল্পীরা আবৃত্তি ও সংগীত পরিবেশন করে। বঙ্গবন্ধু আবৃত্তি পরিষদের আবৃত্তি ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে কবিতা আবৃত্তি ও সংগীত পরিবেশন করে আসমা, প্রখর, ফাহমী, অদিতি, লিজা, সানি, পুনম, জাহিদ, প্রথমা, সাবরিন, প্রত্ন, আকিবা, গৌরী, শুভশ্রী ও অর্পা।
রাতে সাংস্কৃতিক পরিষদের ব্যবস্থাপনায় আরও একটি মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। নতুন কুঁড়ি ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের পরিবেশনায় এই সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। অ্যাডঃ আবুল কালাম সরকারের সার্বিক সহযোগিতায় নতুন কুঁড়ি ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে নৃত্য পরিবেশন করে ইভা, আফরিনা, ছোঁয়া, রিয়া, ইয়াসমিন, জুয়েল, শাকিল, হৃদয়, জিয়া, শাওন ও হাসান। সংগীত পরিবেশন করেন কবির মিজি, কাজল ও সোহাগী। বাঁশিতে ছিলেন বিল্লাল হোসেন শেখ। দুটি অনুষ্ঠান দর্শক-শ্রোতারা সানন্দে উপভোগ করেন।

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো। বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।

%d bloggers like this: